অভিযোগ অনেকদিনের,গ্যাস ভর্তি নতুন সিলিন্ডারে সঠিক পরিমানে গ্যাস পাচ্ছে না গ্রাহক। বারে বারে মৌখিক ভাবে গ্যাস এজেন্সিকে বললেও কর্নপাত নেই তাদের।গ্যাসের সিলিন্ডারে সঠিক ওজন না থাকায় ঘাটালের নিশ্চিন্দীপুরে ঘাটাল ইন্ডেন গ্যাস এজেন্সির লোক ও তাদের গ্যাসের গাড়ি আটকে রেখে বিক্ষোভ দেখাল এলাকাবাসী। 

আরও পড়ুন-UUPTWA এর হাত শক্ত করে চাঁদা বয়কট করলেও খুদে খেলোয়াড়দের তালিমে খামতি রাখেননি ঘাটালের শিক্ষক শিক্ষিকারা

তাদের অভিযোগ দিনের পর দিন ধরে তাদেরকে দেওয়া গ্যাস সিলিন্ডারে কম গ্যাস থাকছে। প্রথম প্রথম বুঝতে না পারলেও রান্নার গ্যাস সময়ের আগেই শেষ হয়ে যেতে থাকলে সন্দেহের বসে বাড়িতে নতুন সিলকরা সিলিন্ডার ওজন করেতে গিয়ে চক্ষু চড়কগাছ। এলাকাবাসীদের প্রায় প্রত্যেকেরই সিলিন্ডারে কম বেশি ২ থেকে ৪ কেজি পর্যন্ত গ্যাস কম। 

আরও পড়ুন- ছবি আঁকায় রাজ্যে প্রথম দাসপুরের সায়নী

তক্কেতক্কে ছিলেন ইন্ডেন গ্যাসের গ্রাহকরা। আজ গ্যাসের গাড়ি ঢুকলে সবাই নিজেদের গ্যাস সিলিন্ডার ওজন করে নিতে চায়। প্রথমটায় এজেন্সির লোক গ্রাহকদের কথায় রাজি না হলেও এলাকাবাসীর চাপে তাদের কথা মেনে প্রত্যেক সিলিন্ডার ওজন শুরু হয়।

দেখাযায় সিলিন্ডারগুলিতে নির্ধারিত পরিমান গ্যাস নেই। এর ফলে এলাকাবাসী গ্যাসের গাড়ি ও ইজেন্সির লোকদের আটকে রাখে। পরে ঘাটাল থানার পুলিস এসে অবস্থা আয়ত্বে আনার চেষ্টা করে। 

জানান যায় যে গ্যাস সিলিন্ডারে শুধু মাত্র লিকুইড গ্যাসের ওজন থাকে ১৪ কেজি ২০০ গ্রাম। এই ওজনের সাথে লোহার সিলিন্ডারের ওজন যুক্ত হয়। এক একটি খালি সিলিন্ডারের ওজন ১৫ কেজি ২০০গ্রাম থেকে ১৫ কেজি ৬০০গ্রামের আসেপাশে থাকে। প্রতিটি সিলিন্ডারের উপরেই খালি সিলিন্ডারের ওজন আলাদা করে লেখা থাকে। তাই গ্যাস সমেত সিল করা সিলিন্ডারের মোট ওজন ২৯ থেকে ৩০ কেজির আসেপাশেই থাকে। 

মোবাইলে নিয়মিত খবর পড়তে এইখানে ক্লিক করুন Whatsapp

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here