নাড়াজোল গ্রামের হাসপাতালের আসেপাশের এলাকা ধীরে অপরিচ্ছন্ন হয়ে উঠেছিল। আজ লঙ্কাগড় নবারুণ সংঘের পক্ষ থেকে ক্লাবের ছেলেরা সকাল থেকেই নিজেদের এলাকার একমাত্র হাসপাতালকে পরিচ্ছন্ন করার জন্য ঝাঁপিয়ে পড়ল।

ক্লাবের প্রায় কুড়িজন সদস্য এদিন ঝাঁটা,কোদাল,কাস্তে নিয়ে প্রায় ঘন্টা চারেকের পরিশ্রমে হাসপাতাল ও হাসপাতালের আসেপাশের এলাকা পরিস্কার পরিচ্ছন্ন করে তোলে।
ক্লাবের এই কাজে ভীষণ খুশি নাড়াজোল হাসপাতালের ডাক্তার বাবুরা।

নাড়াজোল হসাপাতালের এদিনের দায়িত্বপ্রাপ্ত ডাক্তার তরুণ পাত্র বলেন,ক্লাব আজ বিরাট বড় কাজ করল। ক্লাবের এমন উদ্যোগকে আমি স্বাগত জানাই। আমাদের ইচ্ছে থাকলে উপায় থাকেনা এই এতবড় হাসপাতাল নিয়মিত পরিস্কার পরিচ্ছন্ন রাখা। দিনে প্রায় তিনশ থেকে চারশো মানুষ চিকিৎসার জন্য আসে। ফলে আসেপাশে নানা রকম খাবারের টুকরো,পলিথিনের প্যাকেট ছড়িয়ে থাকে। 

স্ব-সহায়ক দলগুলিকে স্বনির্ভর করতে এগিয়ে এল দাসপুরের এই সমবায়

ওই ক্লাবের সম্পাদক তরুণ মাইতি জানান,তাঁরা সারা বছর ধরেই নাড়াজোল গ্রাম পঞ্চায়েতের বিভিন্ন এলাকায় নানাভাবে সমাজ কল্যাণ মূলক কাজ করে থাকেন। নাড়াজোল হাসপাতালে বিভিন্ন গ্রাম থেকে অসুস্থ মানুষ আসেন। হাসপাতালে সুস্থ্য পরিবেশ রক্ষার স্বার্থেই তাদের এই উদ্যোগ।

নিজের গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় ক্লাবের এই কাজের কথা শুনে ছুটে আসেন নিজ নাড়াজোল গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান গগনচন্দ্র সামন্ত। ক্লাবের ছেলেদের উৎসাহিত করতে গগনবাবু দাঁড়িয়েথেকে ক্লাবের পরিচ্ছন্নতা অভিযান দেখেন। তিনি জানান,গ্রামে গ্রামে এভাবে পরিচ্ছন্নতা অভিযানে ক্লাবের ছেলেরা এগিয়ে এলে মিশন নির্মল বাংলার লক্ষ্য পূর্ণ হবে। 

মোবাইলে নিয়মিত খবর পড়তে এইখানে ক্লিক করুন Whatsapp

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here