নিজস্ব সংবাদদাতা: চন্দ্রকোণা থানার মানিককুণ্ডু গ্রামের চাকদহপাড়া সহ বিস্তারিত এলাকায় রমরমিয়ে চলছে পোস্ত চাষ। শাসক দলের স্থানীয় নেতারা ওই পোস্ত চাষের বিষয়টি জানলেও তাঁরা কোনও আপত্তি করেননি বলে অভিযোগ। কারণ কয়েকটি দলের নেতারাও ওই পোস্ত চাষের সঙ্গে জড়িত। সেজন্যই আবগারি থেকে প্রশাসন সবাই পোস্ত চাষ নিয়ে উদাসীন।
প্রতি বছরই চন্দ্রকোণা থানা এলাকায় বিঘের পর বিঘে জমিতে পোস্ত চাষ হয়ে থাকে। অন্যান বছর আবগারি দপ্তর অভিযান চালিয়ে পোস্ত গাছগুলিকে কেটে নষ্ট করে দেয়। এবছর আবগারি দপ্তর কোনও রকম ব্যবস্থা না নেওয়ায় স্থানীয় মানুষজন ক্ষুব্ধ। কারণ পোস্ত গাছের খোলা বা শুটি থেকে আফিম পাওয়া যায়। বীজের শুটি শুকিয়ে যাওয়ার পর যখন পোস্তদানা পেকে যায় তখন সবচেয়ে উৎকৃষ্টমানের পোস্তদানা সংগ্রহ করা হয়। বীজের শুটি সবুজ এবং সবেমাত্র বীজ জন্মাতে শুরু করেছে তখন ভেতরে প্রচুর কষ থাকে তখন তা থেকে আফিম সংগ্রহ করা হয়। সেজন্যই পোস্ত চাষ অবৈধ। কিন্তু চন্দ্রকোণায় প্রকাশ্যে ওই চাষ চলে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here