নিজস্ব সংবাদদাতা: ঘাটাল পুরসভার রাস্তার হাল দেখুন! সবে ধন ঘিঞ্জি রাস্তাটিকেই ব্যবসায়ীরা মালপত্র দিয়ে দখল করে রেখেছেন। দুএক জনের সুবিধের জন্য প্রত্যহ অসংখ্য মানুষকে নানা ঝামেলায় পড়তে হচ্ছে।

ব্যস্ত রাস্তা দখল করেছে দোকানদারদের জিনিসপত্র। ফলে নিত্য যানজটে  আটকে নাকাল নিত্য যাত্রী থেকে শুরু করে অফিস যাত্রীরা। এমনই দৃশ্য প্রত্যহ দেখা যাচ্ছে ঘাটাল পৌরসভার মোড় থেকে  মনসুকা যাবার রাস্তাটিতে।  ব্যস্ত সময়ে বড় যান এর  প্রবেশ নিষিদ্ধ করা স্বত্বেও যাতায়াতের ভোগান্তি কমেনি মানুষের।

ঘাটাল পৌরসভা মোড় থেকে রাস্তাটি রথ্তলা ও চাউলি হয়ে মনসুকা পর্যন্ত গিয়েছে। ঘাটাল পুরসভার বেশ কয়েকটি ওয়ার্ডে মানুষজন সহ মনসুকা-১ ও মনসুকা-২ গ্রামপঞ্চায়েত এলাকার বহুমানুষ ওই পথ দিয়ে যাতায়াত করেন। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, হুগলি জেলার একাংশের মানুষও বিভিন্ন কাজে ওই রাস্তাটি ব্যবহার করেন।

পৌরসভার অফিসের কাছে রাস্তাটি এমনিতেই অত্যন্ত সরু ও ঘিঞ্জি হওয়ার ফলে প্রায়ই জ্যাম হতো এবং মানুষের যাতায়াতের অসুবিধা হতো। তাই সকাল ৯টা থেকে দুপুর ১২টা এবং বিকেল ৩ টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত বড় গাড়ির প্রবেশ নিষিদ্ধ করা হয়েছে। কিন্তু তা স্বত্বেও ওই রাস্তা দিয়ে মানুষের যাতায়াতের কোনো সুবিধা ই হয় নি। কারণ ওই রাস্তাতে দোকানদাররা এই ভাবে বিভিন্ন মালপত্র রাস্তার ওপরেই স্তূপাকার করে রেখেছেন।  বাড়ি তৈরির ইট- বালি- চিপস্ও দিনের পর দিন রাস্তার পাশেই থাকে।    ফলে রাস্তা দিয়ে মানুষের যাতায়াতের ভোগান্তি এতটুকু  কমেনি। রাস্তার এমন পরিস্থিতির কারণে স্থানীয় বাসিন্দারা অত্যন্ত ক্ষুব্ধ। তাঁরা বলেন, পুরসভা ইচ্ছে করলেই রাস্তার দখল করে রাখা জিনিসপত্র এক নিমিষে সরিয়ে দিতে পারে। কিন্তু পুরসভা ইচ্ছে করেই তা করেনি।

পথচলতি মানুষ এবং শহরের বাসিন্দারা এব্যাপারে ক্ষোভ প্রকাশ করলেও পৌর প্রশাসনের কোনও হেলদোল নেই। পুরসভা শুধু  উদাসীনই নয়  ঘাটাল পুরসভার পৌর প্রধান বিভাসচন্দ্র ঘোষের কথাতে কিছুটা প্রশ্রয়ের সুর মিশে রয়েছে। পুরপ্রধান বলেন, পরিস্থিতির প্রেক্ষিতে আমাদেরকেও অনেক সময় মেনে নিতে হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here