রবীন্দ্র কর্মকার: জীবিত, সুস্থ এক বৃদ্ধকে ‘মৃত’ বলে দেখিয়ে তাঁর এটিএম কার্ড ডেলিভারি না দিয়ে ফেরৎ পাঠাল ঘাটাল মুখ্য ডাকঘর। ১২ এপ্রিল ঘাটালের কুশপাতা ১৬ নাম্বার ওয়ার্ডএ এমনই তাজ্জব ঘটনাটি ঘটে। ওই বৃদ্ধের নাম মুক্তারাম মাইতি। মুক্তারামবাবু কৃষি-সেচ দপ্তরের অবসরপ্রাপ্ত কর্মী। পোস্ট অফিসের এই রকম কাজে হতবাক ওই বৃদ্ধ ও তার পরিবার। পরে অবশ্য  আধার কার্ড দেখিয়ে ব্যাংক থেকে কার্ডটি সংগ্রহ করেছেন মুক্তারামবাবু।  তাঁকে ব্যাংক থেকে এটিএম কার্ডের চিঠির প্যাকেটটি তুলে দেওয়া হয়। যে খামের ওপর ডাক বিভাগের সিলমোহর সহ  এখনো লেখা রয়েছে ‘ডিসিজড পার্সন’ অর্থাৎ মৃত ব্যক্তি। এই ঘটনায় এলাকার মানুষ ডাকঘরের প্রতি তীব্র ক্ষোভ ও নিন্দা প্রকাশ করেছেন। এদিকে ঘাটাল মুখ্য ডাকঘরের পোস্ট মাস্টার তপন দাসকে ব্যাপারটি জানাতেই তিনি বলেন, কেন এমনটি ঘটল তা খোঁজ নিয়ে দেখবেন।  মুক্তারামবাবুর জামাই ওঙ্কারনাথ দত্ত বলেন, আমার শ্বশুরমশাই বেশ কয়েক দশক ঘাটাল শহরে বসবাস করছেন।  বাড়ি থেকে এক-দেড় কিলোমিটার দূরেই ব্যাঙ্ক ও ডাকঘর। ঘাটাল সড়কের পাশে  বাড়ি সংলগ্নই তাঁর পুত্রের একটি নার্সিংহোম রয়েছে। বাড়ি এবং নার্সিংহোমে প্রায় প্রতিদিনই  চিঠি আসে। তাই বাড়িতে এটিএম কার্ড আসবে না এটা কোনও ভাবেই ভাবতে পারেননি তারা। ওঙ্কারনাথবাবু বলেন,  এমনটি কেমন হল বুঝে উঠতে পারছি না। পুরো বিষয়টি নিয়ে সন্দেহ হচ্ছে। এবিষয়ে যদি কারো গাফিলতি প্রমাণিত হয় তবে তার উপযুক্ত শাস্তি দাবি করছেন তারা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here